ক্রেডিট এবং ডেবিট কার্ড কী ? এদের মধ্যে পার্থক্য কী?

আমাদের দেশের প্রায় অনেক মানুষের ব্যাংক অ্যাকাউন্ট আছে । 

আজকের এই একুশ শতকে এসেও অনেক মানুষ আদিকালের মতো চেকের মাধ্যমে টাকা তুলে থাকে । কিন্তু আমাদের দেশের প্রায় প্রতিটি বড় বড় ব্যাংক তাদের গ্রাহকদের ক্রেডিট কার্ড এবং ডেবিট কার্ড দিয়ে থাকে। এই কার্ড সমুহ VISA, MasterCard ইত্যাদির সাথে যুক্ত থাকায় এক ব্যাংকের কার্ড দিয়ে অন্য ব্যাংকের এটিএম থেকে টাকা উত্তোলন করা যায় । তো আজকের এই পোস্টে আমরা আলোচনা করব ক্রেডিট ও ডেবিট কার্ড কী? এদের মধ্যে পার্থক্য কী ? কোনটা ব্যবহার ভালো ?

আর আজাইরা কোন কথা না বলে চলুন শুরু করি।

ক্রেডিট কার্ড কী ?

ক্রেডিট কার্ড

ক্রেডিট কার্ড হলো একটা পেমেন্ট কার্ড যা একজন ব্যক্তির ব্যাংক অ্যাকাউন্ট এর বিপরীতে ঐ ব্যক্তিকে দেওয়া হয় ।যার ফলে ঐ ব্যক্তি ক্রেডিট কার্ডটি ব্যবহার করে বিভিন্ন ধরনের পেমেন্ট করতে পারে । ক্রেডিট কার্ড থেকে খরচ করতে হলে ঐ কার্ডের সাথে যুক্ত অ্যাকাউন্ট এর মধ্যে টাকা থাকা আবশ্যক নয় । একটা নির্দিষ্ট পরিমাণ টাকা পর্যন্ত নির্দিষ্ট সময়ে খরচ করা যায়।  ওই সময়সীমা শেষ হলে ব্যবহৃত টাকা সুদ সহ ব্যাংককে ফেরত দিতে হয় ।কতদিন পর্যন্ত এবং কত টাকা খরচ করা যাবে , সেটা ব্যক্তি থেকে ব্যক্তির মাঝে পরিবর্তন হতে পারে । একজন ব্যক্তির মাসিক ইনকাম, ওই ব্যক্তি কী কাজ করে ইত্যাদি বিষয়ের উপর নির্ভর করে দেওয়া হয় । ক্রেডিট কার্ড ব্যবহার করে টাকা উত্তোলন , বিভিন্ন ধরনের পেমেন্ট, ইন্টারনেট ব্যাংকিং, শপিং কমপ্লেক্স এ  বা দোকানে POS ব্যবহার করে কার্ড সোয়াইপ করে পেমেন্ট করা সহ অন্যান্য সুযোগ সুবিধা পাওয়া যায় । 

ডেবিট কার্ড কী ?

ডেবিট কার্ড

ক্রেডিট কার্ডের মতোই ডেবিট কার্ডও একজন ব্যক্তির ব্যাংক অ্যাকাউন্টের সাথে যুক্ত করা থাকে। যার ফলে কার্ডটি ব্যবহার করে ওই ব্যক্তি তার অ্যাকাউন্ট থেকে পেমেন্ট করতে পারে। কিন্তু ক্রেডিট কার্ডে যেমন টাকা না থাকলেও যেমন ব্যবহার করা যায় এবং পরে তা শোধ করে দিতে হয় । ডেবিট কার্ডের ক্ষেত্রে তা সম্ভব নয়। ডেবিট কার্ড থেকে পেমেন্ট করতে গেলে বা ডেবিট কার্ড থেকে খরচ করতে হলে ব্যাংক অ্যাকাউন্টে টাকা থাকতে হবে । ব্যাংক অ্যাকাউন্টে টাকা না থাকলে তা ব্যবহার করা যায় না। তাছাড়া ক্রেডিট কার্ডের সাথে কোন পার্থক্য নেই । ডেবিট কার্ড ব্যবহার করে টাকা উত্তোলন , বিভিন্ন ধরনের পেমেন্ট, ইন্টারনেট ব্যাংকিং, শপিং কমপ্লেক্স এ  বা দোকানে POS ব্যবহার করে কার্ড সোয়াইপ করে পেমেন্ট করা যায় । ক্রেডিট কার্ডের মাধ্যমে যা করা যায় তাই আরকি । আর ডেবিট কার্ড ব্যবহার করার জন্য বছরে একটা নির্দিষ্ট পরিমাণে কার্ডের ফী দিতে হয় ।

ক্রেডিট কার্ড ও ডেবিট কার্ড এর মধ্যে পার্থক্য

ডেবিট কার্ড ও ক্রেডিট কার্ডের  পার্থক্য

ক্রেডিট কার্ড ও ডেবিট কার্ড এর মধ্যে মূল পার্থক্য একটাই সেটা হলো ক্রেডিট কার্ডের মধ্যে টাকা না থাকলেও একটা নির্দিষ্ট পরিমাণ টাকা খরচ করতে পারবেন এবং পরে তা শোধ করতে হবে।  কিন্তু ডেবিট কার্ডের ক্ষেত্রে সেটা করতে পারবেন না । ডেবিট কার্ড থেকে খরচ করতে হলে আপনার ব্যাংক অ্যাকাউন্টে টাকা থাকতে হবে । তাহলেই আপনি ডেবিট কার্ড ব্যবহার করে খরচ করতে পারবেন । আর ক্রেডিট কার্ডে ব্যবহৃত টাকার উপরে সুদ দিতে হবে। কিন্তু ক্রেডিট কার্ডের ক্ষেত্রে সেই ঝামেলা নেই ।ডেবিট কার্ডের ব্যবহারের জন্য কার্ডের ফী দিলেই হয় ।

ক্রেডিট কার্ড ও ডেবিট কার্ড ব্যবহারের সুবিধা

ক্রেডিট বা ডেবিট কার্ড ব্যবহার করার ফলে আপনি প্রায় একই রকম সুযোগ – সুবিধা পাবেন । শুধু ক্রেডিট কার্ড ব্যবহার করলে আপনার ব্যাংক অ্যাকাউন্টে টাকা না থাকলেও একটা নির্দিষ্ট পরিমাণ টাকা খরচ করতে পারবেন। কিন্তু ডেবিট কার্ডে সেটা পারবেন না। আর অন্যান্য সুযোগ সুবিধা একই। যেমন, সহজে এটিএম ব্যবহার করে টাকা উত্তোলন করা, ইন্টারনেট ব্যাংকিং, এটিএম বুথ থেকে টাকার পরিমাণ চেক করা , আবার কিছু  ব্যাংকের ফাস্ট ট্রাকের মাধ্যম ব্যাংক অ্যাকাউন্টে টাকা জমা দেওয়া যায়। এগুলোই ক্রেডিট কার্ড ও ডেবিট কার্ড ব্যবহারের সুবিধা ।

ক্রেডিট কার্ড ও ডেবিট কার্ড এর মধ্যে কোনটা ভালো

এখন কোনটা ভালো, এই প্রশ্নের উত্তর একটু কঠিন । আপনি ক্রেডিট কার্ড ব্যবহার করবেন না ডেবিট কার্ড ব্যবহার করবেন। সেটা নির্ভর করে আপনার উপর ।

আপনি যদি একজন সাধারণ মানুষ হন। তাহলে আপনার ডেবিট কার্ড নেওয়াটাই ভালো হবে । আপনার ব্যাংক অ্যাকাউন্টে টাকা জমা থাকবে । আপনি আপনার ব্যাংক অ্যাকাউন্ট থেকে সহজে কোন ঝামেলা ছাড়া এটিএম থেকে টাকা তুলতে পারবেন। প্রায় এটিএম বুথ গুলো ২৪/৭, অর্থাৎ সপ্তাহে সাত দিন । চব্বিশ ঘণ্টা খোলা থাকে । তাই ব্যাংক খোলা থাকা না থাকা, চেকের স্বাক্ষর কাটাকাটি বা ওভার রাইট হওয়া না হওয়ার উপর নির্ভর করবে না ।

আর আপনি যদি বড় ব্যবসায়ী বা কোন বড় পদে চাকরি করেন। তাহলে আপনি ডেবিট কার্ড ব্যবহার করতে পারেন । সেক্ষেত্রে আপনার কাছে টাকা না থাকলেও ডেবিট কার্ড ব্যবহার করে খরচ করতে পারবেন। আর যেহেতু আপনার ভবিষ্যতের অর্থ সংকটে পড়ার সম্ভবনা নেই। তাই পরে শোধ করে দিতে পারেন ।

আসলে আপনি ক্রেডিট কার্ড ব্যবহার করবেন না ডেবিট কার্ড ব্যবহার করবেন। সেটা একান্তই আপনার উপর নির্ভর করবে।  এক্ষেত্রে অন্যের কাছ থেকে আপনার জ্ঞান নেওয়ার খুব একটা প্রয়োজন নেই ।

আরও পড়ুন, রকেট অ্যাকাউন্ট ব্যবহার করে এটিএম থেকে টাকা তোলার পদ্ধতি

ক্রেডিট কার্ড ও ডেবিট কার্ড এর নিরাপত্তা

ক্রেডিট কার্ড ও ডেবিট কার্ড

দেখুন ডেবিট বা ক্রেডিট যেই কার্ডই হোক। তার নিরাপত্তা নিশ্চিত করা । কার্ডের উপরে যে নম্বর লেখা থাকে , সেটা ব্যবহার করে ইন্টারনেটে টাকা ট্রান্সফার করা সম্ভব । অনেক ক্ষেত্রে কোন মেসেজ বা ভেরিফিকেশন মধ্যে টাকা ট্রান্সফার হয়ে যায়।  তাই আপনার যদি কোন ডেবিট বা ক্রেডিট কার্ড থাকে। তাহলে সেটা ইচ্ছায় বা অনিচ্ছায় অন্যকে দেখানো থেকে বিরত থাকুন । অনেক ক্ষেত্রে দেখা যায় আপনি কাউকে আপনার কার্ডটি দেখলেন এবং সে কার্ডের উপরের নম্বরটি দেখে নিল। পরে সে সেই কার্ড ব্যবহার করে ইন্টারনেটের মাধ্যমে আপনার ব্যাংক অ্যাকাউন্টের টাকা ট্রান্সফার করে ফেলতে পারে । এটা ছাড়াও কিছুদিন পরপর অ্যাকাউন্ট চেক করা এবং সব সময় নিরাপত্তার বিষয়টি আমাদের মাথায় রাখা উচিত ।

Conclusion

আজকের এই পোস্ট আমি  ক্রেডিট কার্ড , ডেবিট কার্ড এবং এদের মধ্যে পার্থক্য নিয়ে আলোচনা করেছি। আমার ক্ষুদ্র জ্ঞানে আমি লিখেছি ।আমি মনে করি যাদের ব্যাংকে অ্যাকাউন্ট আছে । তাদের প্রায় সবার উচিত একটা কার্ড ব্যবহার করা । সেটা হোক ডেবিট বা ক্রডিট কার্ড । যদি আপনার কোন কিছুতে সমস্যা হয় তাহলে কমেন্ট করে জানাবেন। 

আজকে এটুকুই থাক অনেক বকবক করলাম। 

3 thoughts on “ক্রেডিট এবং ডেবিট কার্ড কী ? এদের মধ্যে পার্থক্য কী?”

  1. Pingback: Rocket ব্যবহার করে atm টাকা তোলার থেকে টাকা তোলার পদ্ধতি - NurPost

  2. Pingback: ইসলামী ব্যাংকে স্টুডেন্ট অ্যাকাউন্ট খোলার নিয়ম - NurPost

  3. Pingback: এবি ব্যাংকে স্টুডেন্ট অ্যাকাউন্ট খোলার নিয়ম।AB bank student account - NurPost

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Share via
Copy link
Powered by Social Snap