ডাজ বাংলা ব্যাংক লোন | Dutch bank loan | Dbbl loan

ডাচ বাংলা ব্যাংক লোন | Dutch Bangla bank loan | Dbbl loan

অনেক সময় আমাদের টাকার প্রয়োজন হয় ।

কিন্তু আমাদের কাছে টাকা থাকে না ।

তখন আমরা চেষ্টা করি টাকা ধার নেওয়ার ।

কিন্তু অনেক বড় পরিমাণে টাকা কেউই ধার দিতে চায় না ।

তাই এই সমস্যার সমাধানে আমরা বিভিন্ন ব্যাংকের কাছে যেয়ে থাকি লোনের জন্য ।

আমাদের দেশে অনেক ব্যাংকে রয়েছে যারা প্রত্যেকে প্রায় লোন দিয়ে থাকে ।

এছাড়া অনেক ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র প্রতিষ্ঠান রয়েছে যারা লোন দিয়ে থাকে ।

আজকে আমরা ডাচ বাংলা ব্যাংক এর লোন সম্পর্কে কথা বলব।

ডাচ বাংলা ব্যাংক এর লোন 

বাংলাদেশের অন্যান্য সকল ব্যাংকের মতো Dutch Bangla Bank loan দিয়ে থাকে। 

ব্যক্তিগত লোন ,হোম লোন, কার লোনের মত বিভিন্ন ক্ষেত্রে ডাচ বাংলা ব্যাংক লোন দিয়ে থাকে ।

আজকে আমরা জানবো ডাচ বাংলা ব্যাংক কোন কোন ক্ষেত্রে লোন দেয় ,কত পরিমাণে দেয় , সুদের হার কেমন এবং কত দিন মেয়াদে দেয় ।

আমরা এখানে শুধুমাত্র ডাচ বাংলা ব্যাংক এর লোন সম্পর্কে ধারণা দেওয়ার চেষ্টা করেছি ।

মনে রাখবেন, সময়ের সাথে সাথে এই তথ্যগুলো পরিবর্তন হতে পারে ।

তাই একদম সঠিক তথ্যের জন্য এবং লোন নেওয়ার জন্য আপনার আশেপাশে ডাচ বাংলা ব্যাংকের ব্রাঞ্চ অথবা এজেন্ট আউটলেটে যোগাযোগ করুন ।

তাহলে আর কথা না বাড়িয়ে চলুন দেখে নেয়া যাক ডাচ বাংলা ব্যাংক কোন কোন ক্ষেত্রে লোন দেয়।

কোন ক্ষেত্রে ডাচ বাংলা ব্যাংক লোন দেয়

যেসব ক্ষেত্রে ডাচ বাংলা ব্যাংক লোন দেয় সেগুলো হল ।

  1. ব্যক্তিগত লোন ।

ডাচ বাংলা ব্যাংক ব্যক্তিগত যে কোন প্রয়োজনে লোন দিয়ে থাকে । 

বাংলাদেশের যেকোনো নাগরিক এই লোনের জন্য আবেদন করতে পারবেন।

 এবং প্রতি মাসে কিস্তির মাধ্যমে এই লোন পরিশোধ করতে হবে ।

  1. কার লোন ।

কোন নতুন গাড়ি কেনার জন্য ডাচ বাংলা ব্যাংক ঋণ দিয়ে থাকে।

বাংলাদেশের যেকোন নাগরিক এই লোনের জন্য আবেদন করতে পারবেন।

  1. হোম লোন । 

নতুন কোনো বাড়ি অথবা ফ্ল্যাট কেনার জন্য , পুরাতন বাড়ি কে বড় করার জন্য কিংবা মেরামত করার জন্য অথবা নতুন করে বাড়ির নির্মাণ করার জন্য এই ঋণ দেওয়া হয়ে থাকে।

লোনের পরিমাণ এবং সুদের হার  

হোম লোন

 যে বাড়ি / ফ্ল্যাটের জন্য নেওয়া হচ্ছে তার মূল্যের ৭০ শতাংশ পর্যন্ত লোন দেওয়া হবে ।

যা সর্বনিম্ন ২ লক্ষ টাকা থেকে সর্বোচ্চ ২ কোটি টাকা পর্যন্ত হতে পারে ।

সুদের হার ৮ শতাংশ । 

যা এক বছর থেকে ১২ বছরের মধ্যে পরিশোধ করতে হবে। 

লোন নেওয়ার জন্য গ্রাহকের বয়স ১৮ বছর থেকে সর্বোচ্চ ৭৫ বছর বয়সের মধ্যে হতে হবে এবং মাসিক ইনকাম সর্বনিম্ন ৩০ হাজার টাকা হতে হবে।

ব্যক্তিগত লোন  

সরকারি, বেসরকারি, আধা-সরকারি, স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠানে চাকরিরত ব্যক্তিরা অথবা ব্যবসায়ীরা এই ঋণের জন্য আবেদন করতে পারবে ।

লোনের পরিমাণ সর্বনিম্ন ৫০ হাজার টাকা থেকে শুরু করে সর্বোচ্চ ২ কোটি পর্যন্ত হতে পারে ।

সুদের হার ৭.৫ শতাংশ । যা এক বছর থেকে পাঁচ বছরের মধ্যে পরিশোধ করতে হবে । 

লোন নেওয়ার জন্য গ্রাহকের বয়স সর্বনিম্ন ১৮ বছর হতে হবে । 

গ্রাহক চাকুরীজীবী হলে বেতন সর্বনিম্ন ৩০ হাজার টাকা । ব্যবসায়ী হলে মাসিক ইনকাম ৫০ হাজার টাকা হতে হবে ।

কার লোন 

এই লোনের পরিমাণ গাড়ির দামের ৫০ শতাংশ অর্থাৎ অর্ধেক দেওয়া হবে । 

যার পরিমাণ ১ লক্ষ টাকা থেকে শুরু করে ৪০ লক্ষ টাকা পর্যন্ত হতে পারে।

যা ৮ শতাংশ সুদ সহ এক বছর থেকে পঁচিশ বছরের মধ্যে পরিশোধ করতে হবে।

গ্রাহকের বয়স ১৮ বছরের বেশি হতে হবে ।

চাকুরীজীবিদের ক্ষেত্রে বেতন ২৫ হাজার টাকা , প্রফেশনালদের জন্য বেতন ৪০ হাজার টাকা এবং ব্যবসায়ীদের মাসিক ইনকাম ৫০ হাজার টাকা বা তার বেশি হতে হবে ।

পেশা বা আয়ের উৎস  

ডাচ বাংলা ব্যাংক থেকে লোন যোগ্য হওয়ার জন্য গ্রাহকের পেশা যেগুলো হতে পারে।

  • চাকুরী ।
  • ব্যবসা ।
  • বাড়ি ভাড়া । 
  • পেশাজীবী ( যেমন: ডাক্তার, প্রকৌশলী, চার্টার্ড অ্যাকাউন্টেন্ট ইত্যাদি )।
  • অন্যান্য বৈধ এবং গ্রহণযোগ্য পেশা ।

প্রয়োজনীয় কাগজপত্র

  • জাতীয় পরিচয় পত্র ।
  • সদ্য তোলা এক কপি পাসপোর্ট সাইজ ছবি ।
  • নূন্যতম ছয় মাসের ব্যাংক স্টেটমেন্ট ।
  • আয় এবং পেশার প্রমাণাদি। 
  • পার্সোনাল গ্যারান্টি ।
  • লোনের পরিমাণ পাঁচ লক্ষ টাকার বেশি হলে টিন অথবা ই-টিন সার্টিফিকেট ।
  • কার লোনের ক্ষেত্রে গ্রাহক কর্তৃক গৃহীত গাড়ির কোটেশন।
  • প্রযোজ্য ক্ষেত্রে অন্যান্য তথ্য ও জামানত ।

সুবিধা 

  • আকর্ষণীয় সুদের হার ।
  • সহনশীল মাসিক কিস্তি ।
  • দ্রুত ও সহজ প্রক্রিয়া ।
  • সুবিধাজনক মেয়াদ ।
  • দেশব্যাপী অসংখ্য শাখা, ফাস্ট ট্র্যাক ,এটিএম ,মোবাইল ব্যাংকিং এবং এজেন্ট ব্যাংকিং সুবিধা।
  • মোবাইল এসএমএস এর মাধ্যমে ঋণ আবেদনের এলার্ট প্রদান।
  • মেয়াদ পূর্তির পূর্বে আংশিক বা সম্পূর্ণ পরিশোধের সুবিধা ।
  • দেশের যেকোনো প্রান্ত থেকে টাকা পরিশোধের সুবিধা ।
  • ১৬২১৬ নম্বরে চব্বিশ ঘন্টা কল সেন্টারের সুবিধা । 

আমার শেষ কথা  

আজকের এই পোষ্টের মাধ্যমে আমরা ডাচ বাংলা ব্যাংকের লোন সম্পর্কে জানলাম ।

এই লোন সম্পর্কে আরও কোন প্রশ্ন থাকলে কমেন্টে আমাদেরকে জানান ।

আমরা উত্তর দেওয়ার চেষ্টা করব।

ডাচ বাংলা ব্যাংকের লোন নেওয়ার সুবিধা অনেক ।

যেকোনো জায়গায় থেকে এই লোন পরিশোধ করার সুবিধাটি আমার কাছে খুবই ভালো লেগেছে ।

তাছাড়াও তাদের রয়েছে অসংখ্য ফাস্ট ট্রাক ,এটিএম এবং এজেন্ট; যার ফলে শহরে শাখায় না গিয়েও আমরা গ্রামে বা উপজেলা পর্যায়ে সুবিধা গ্রহণ করতে পারি ।

এটা আমার কাছে খুব ভালো লেগেছে ।

আপনার প্রয়োজন পড়লে আপনি লোন নিতে পারেন ।

তাছাড়া তাদের কল সেন্টার সব সময় খোলা থাকে এবং যেকোনো সময় পাওয়া যায় ।

তাই লোন নেওয়ার জন্য আপনার নিকটস্থ ডাচ বাংলা ব্যাংকের শাখা  অথবা এজেন্ট আউটলেটে যোগাযোগ করুন ।

আজকে এটুকুই থাক ।

প্রায়শই জিজ্ঞাসিত কিছু প্রশ্ন

ডাচ বাংলা ব্যাংক লোন সুদের হার

পার্সোনাল লোনের জন্য সুদের হার ৭.৫০% ।
হোম লোন ও কার লোনের জন্য সুদের হার ৮% ।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Share via
Copy link
Powered by Social Snap