এবি ব্যাংকে স্টুডেন্ট অ্যাকাউন্ট খোলার নিয়ম।AB bank student account

আমরা মনে করি ব্যাংকিং করা বড়দের কাজ । ছোটদের ব্যাংকিং করার প্রয়োজন নেই বা করা যায় না। কিন্তু বাংলাদেশের বেশিরভাগ ব্যাংকই ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য অ্যাকাউন্ট খোলার অপশন রয়েছে।  ১৮ বছরের নিচের ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য ব্যাংক অ্যাকাউন্ট খোলা যায় । আজকের এই পোস্টে আমরা জানব কিভাবে এবি ব্যাংকে স্টুডেন্ট অ্যাকাউন্ট খোলা যায়, এবি ব্যাংকের স্টুডেন্ট অ্যাকাউন্টের সুবিধা , খরচ, কী কী কাগজপত্র লাগে। 

তাহলে আর সময় নষ্ট না করে চলুন শুরু করি ।

এবি ব্যাংক স্টুডেন্ট একাউন্ট খোলার নিয়ম

কিভাবে এবি ব্যাংকে স্টুডেন্ট অ্যাকাউন্ট খোলা যায়।

ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য এবি ব্যাংকে অ্যাকাউন্ট স্বাধীনভাবে বা নিজে নিজে খোলা যায় না। ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য এবি ব্যাংকে অ্যাকাউন্ট খুলতে গেলে একজন অভিভাবকের তত্বাবধানে খুলতে হবে । বয়স ১৮ বছর হওয়ার পরে স্বাধীনভাবে অ্যাকাউন্টটি ছাত্র বা ছাত্রীর নামে হয়ে যাবে । অভিভাবকের তত্বাবধানে অ্যাকাউন্টটি খুললে অ্যাকাউন্টটি পরিচালনা করে অভিভাবক । মানে চেকে স্বাক্ষর করবে আপনার অভিভাবক ।

এবি ব্যাংকে স্টুডেন্ট অ্যাকাউন্ট খুলতে হলে প্রথমে আপনার নিকটস্থ এবি ব্যাংকের শাখায়  যাবেন । তারপর দায়িত্বরত কর্মকর্তার থেকে অ্যাকাউন্ট ওপেনিং ফর্ম নিয়ে, পুরন করে জমা দিন । সাথে সাথে ডেবিট কার্ডের জন্য আবেদন করে দিতে পারেন। 

অ্যাকাউন্ট খোলা হয়ে গেলে কিছুদিন (ব্যাংক থেকে সময়টা জেনে নেবেন ) পর গিয়ে আপনার চেক বই এবং ডেবিট কার্ড নিয়ে নিবেন । ব্যাস আপনার অ্যাকাউন্ট খোলা হয়ে গেছে ।এখন আপনার অ্যাকাউন্টে টাকা জমা এবং উত্তলন করতে পারবেন ।

এবি ব্যাংকের স্টুডেন্ট অ্যাকাউন্টের সুবিধা

এবি ব্যাংকের স্টুডেন্ট অ্যাকাউন্টের যেসব সুবিধা আপনি পাবেন,

1 . কোন সার্ভিস চার্জ নেই :

সাধারণ ব্যাংক অ্যাকাউন্ট গুলোকে সার্ভিস চার্জ বা মেইনটেনেন্স চার্জ দিতে হয় । কিন্তু স্টুডেন্ট অ্যাকাউন্ট থাকলে সার্ভিস চার্জ বা মেইনটেনেন্স চার্জ দিতে হয় না । একদম ফ্রী।

আরও পড়ুন, স্নাতক পাশে ব্র্যাক ব্যাংকে চাকরি

2 .  ইন্টারেস্ট রেট: 

এবি ব্যাংকের স্টুডেন্ট অ্যাকাউন্টের ইন্টারেস্ট রেট দেখতে এখানে ক্লিক করুন

3 . ফ্রি ডেবিট কার্ড:

ফ্রি এবি ব্যাংকের ডেবিট কার্ড

সাধারণ অ্যাকাউন্টের বিপরীতে ডেবিট কার্ড নিয়ে গেলে সেটার একটা ফী দিতে হয়।  কিন্তু স্টুডেন্ট অ্যাকাউন্টের ক্ষেত্রে ডেবিট কার্ড ফ্রিতে দেওয়া হয় ।

4 . ফ্রিতে অ্যাকাউন্ট খোলা:

অ্যাকাউন্ট খুলতে গেলে কোন প্রকার চার্জ দিতে হয় না।  ফ্রিতে অ্যাকাউন্ট খোলা যায়। 

5 ফ্রি এসএমএস ব্যাংকিং এবং ইন্টারনেট ব্যাংকিং:

অ্যাকাউন্টে টাকা আসলে হলে বা অ্যাকাউন্ট থেকে টাকা বের করা হলে এসএমএস এর মাধ্যমে জানিয়ে দেওয়া হবে । যার জন্য কোন সার্ভিস চার্জ কাটা হবে না। সাথে সাথে ফ্রি ইন্টারনেট ব্যাংকিং এর সুবিধা পাওয়া যাবে । ফলে ইন্টারনেটে বিভিন্ন ই-কমার্স সাইটে এই অ্যাকাউন্ট ব্যবহার করে পেমেন্ট করা যাবে । কোন সার্ভিস চার্জ ছাড়াই।

6 . মোবাইল রিচার্জ:

এই অ্যাকাউন্ট ব্যবহার করে তাৎক্ষণিক মোবাইলে টাকা রিচার্জ করা সম্ভব। যার জন্য অতিরিক্ত কোন টাকা বা চার্জ কাটা হয় না ।

এবি ব্যাংকে স্টুডেন্ট অ্যাকাউন্ট খুলতে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র ।

এবি ব্যাংকের স্টুডেন্ট অ্যাকাউন্ট মূলত দুই প্রকার। একটা হলো এবি মাইনর (১৮ বছরের ছোট ছাত্রদের জন্য ) এবং অন্যটি হলো এবি মেজর (১৮ বছর বা তার চেয়ে বেশি বড়দের জন্য)।

এবি মাইনরের জন্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্র

1 . ছাত্রের জন্ম নিবন্ধনের ফটোকপি

2 স্টুডেন্ট আইডি বা বিদ্যালয়ের প্রত্যয়ন পত্র ।

 2 ছবি।

3 . অভিভাবকের জাতীয় পরিচয় পত্রের ফটোকপি ।

এবি মেজরের জন্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্র।

1 . জাতীয় পরিচয় পত্রের ফটোকপি।

2 . ছবি।

3 . স্টুডেন্ট আইডি বা বিদ্যালয়ের প্রত্যয়ন পত্র ।

সাধারণত এই সকল কাগজপত্র প্রয়োজন হয়। কিন্তু ব্যাংকের শাখা ভেদে কাগজপত্র কম বেশি নিতে পারে । 

Conclusion:

আজকের এই পোস্টে আমি এবি ব্যাংকের স্টুডেন্ট অ্যাকাউন্ট কিভাবে খুলতে হয়, প্রয়োজনীয় কাগজপত্র এবং সুবিধা নিয়ে আলোচনা করেছি । কোন মন্তব্য থাকলে বা কোন কিছু বুঝতে অসুবিধা হলে কমেন্ট করুন । আজ এটুকুই থাক । আবার নতুন পোস্টে কথা হবে। 

1 thought on “এবি ব্যাংকে স্টুডেন্ট অ্যাকাউন্ট খোলার নিয়ম।AB bank student account”

  1. Pingback: রূপালী ব্যাংকে স্টুডেন্ট অ্যাকাউন্ট খোলার নিয়ম | Rupali Bank Student Account - NurPost

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Share via
Copy link
Powered by Social Snap