এবি ব্যাংকে স্টুডেন্ট অ্যাকাউন্ট খোলার নিয়ম।AB bank student account

You are currently viewing এবি ব্যাংকে স্টুডেন্ট অ্যাকাউন্ট খোলার নিয়ম।AB bank student account
পোস্টটি শেয়ার করে নিজে রাখতে পারেন এবং আপনার বন্ধুদের পড়ার সুযোগ করে দিতে পারেন ।

আমরা মনে করি ব্যাংকিং করা বড়দের কাজ । ছোটদের ব্যাংকিং করার প্রয়োজন নেই বা করা যায় না। কিন্তু বাংলাদেশের বেশিরভাগ ব্যাংকই ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য অ্যাকাউন্ট খোলার অপশন রয়েছে।  ১৮ বছরের নিচের ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য ব্যাংক অ্যাকাউন্ট খোলা যায় । আজকের এই পোস্টে আমরা জানব কিভাবে এবি ব্যাংকে স্টুডেন্ট অ্যাকাউন্ট খোলা যায়, এবি ব্যাংকের স্টুডেন্ট অ্যাকাউন্টের সুবিধা , খরচ, কী কী কাগজপত্র লাগে। 

তাহলে আর সময় নষ্ট না করে চলুন শুরু করি ।

এবি ব্যাংক স্টুডেন্ট একাউন্ট খোলার নিয়ম

কিভাবে এবি ব্যাংকে স্টুডেন্ট অ্যাকাউন্ট খোলা যায়।

ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য এবি ব্যাংকে অ্যাকাউন্ট স্বাধীনভাবে বা নিজে নিজে খোলা যায় না। ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য এবি ব্যাংকে অ্যাকাউন্ট খুলতে গেলে একজন অভিভাবকের তত্বাবধানে খুলতে হবে । বয়স ১৮ বছর হওয়ার পরে স্বাধীনভাবে অ্যাকাউন্টটি ছাত্র বা ছাত্রীর নামে হয়ে যাবে । অভিভাবকের তত্বাবধানে অ্যাকাউন্টটি খুললে অ্যাকাউন্টটি পরিচালনা করে অভিভাবক । মানে চেকে স্বাক্ষর করবে আপনার অভিভাবক ।

এবি ব্যাংকে স্টুডেন্ট অ্যাকাউন্ট খুলতে হলে প্রথমে আপনার নিকটস্থ এবি ব্যাংকের শাখায়  যাবেন । তারপর দায়িত্বরত কর্মকর্তার থেকে অ্যাকাউন্ট ওপেনিং ফর্ম নিয়ে, পুরন করে জমা দিন । সাথে সাথে ডেবিট কার্ডের জন্য আবেদন করে দিতে পারেন। 

অ্যাকাউন্ট খোলা হয়ে গেলে কিছুদিন (ব্যাংক থেকে সময়টা জেনে নেবেন ) পর গিয়ে আপনার চেক বই এবং ডেবিট কার্ড নিয়ে নিবেন । ব্যাস আপনার অ্যাকাউন্ট খোলা হয়ে গেছে ।এখন আপনার অ্যাকাউন্টে টাকা জমা এবং উত্তলন করতে পারবেন ।

এবি ব্যাংকের স্টুডেন্ট অ্যাকাউন্টের সুবিধা

এবি ব্যাংকের স্টুডেন্ট অ্যাকাউন্টের যেসব সুবিধা আপনি পাবেন,

1 . কোন সার্ভিস চার্জ নেই :

সাধারণ ব্যাংক অ্যাকাউন্ট গুলোকে সার্ভিস চার্জ বা মেইনটেনেন্স চার্জ দিতে হয় । কিন্তু স্টুডেন্ট অ্যাকাউন্ট থাকলে সার্ভিস চার্জ বা মেইনটেনেন্স চার্জ দিতে হয় না । একদম ফ্রী।

আরও পড়ুন, স্নাতক পাশে ব্র্যাক ব্যাংকে চাকরি

2 .  ইন্টারেস্ট রেট: 

এবি ব্যাংকের স্টুডেন্ট অ্যাকাউন্টের ইন্টারেস্ট রেট দেখতে এখানে ক্লিক করুন

3 . ফ্রি ডেবিট কার্ড:

ফ্রি এবি ব্যাংকের ডেবিট কার্ড

সাধারণ অ্যাকাউন্টের বিপরীতে ডেবিট কার্ড নিয়ে গেলে সেটার একটা ফী দিতে হয়।  কিন্তু স্টুডেন্ট অ্যাকাউন্টের ক্ষেত্রে ডেবিট কার্ড ফ্রিতে দেওয়া হয় ।

4 . ফ্রিতে অ্যাকাউন্ট খোলা:

অ্যাকাউন্ট খুলতে গেলে কোন প্রকার চার্জ দিতে হয় না।  ফ্রিতে অ্যাকাউন্ট খোলা যায়। 

5 ফ্রি এসএমএস ব্যাংকিং এবং ইন্টারনেট ব্যাংকিং:

অ্যাকাউন্টে টাকা আসলে হলে বা অ্যাকাউন্ট থেকে টাকা বের করা হলে এসএমএস এর মাধ্যমে জানিয়ে দেওয়া হবে । যার জন্য কোন সার্ভিস চার্জ কাটা হবে না। সাথে সাথে ফ্রি ইন্টারনেট ব্যাংকিং এর সুবিধা পাওয়া যাবে । ফলে ইন্টারনেটে বিভিন্ন ই-কমার্স সাইটে এই অ্যাকাউন্ট ব্যবহার করে পেমেন্ট করা যাবে । কোন সার্ভিস চার্জ ছাড়াই।

6 . মোবাইল রিচার্জ:

এই অ্যাকাউন্ট ব্যবহার করে তাৎক্ষণিক মোবাইলে টাকা রিচার্জ করা সম্ভব। যার জন্য অতিরিক্ত কোন টাকা বা চার্জ কাটা হয় না ।

এবি ব্যাংকে স্টুডেন্ট অ্যাকাউন্ট খুলতে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র ।

এবি ব্যাংকের স্টুডেন্ট অ্যাকাউন্ট মূলত দুই প্রকার। একটা হলো এবি মাইনর (১৮ বছরের ছোট ছাত্রদের জন্য ) এবং অন্যটি হলো এবি মেজর (১৮ বছর বা তার চেয়ে বেশি বড়দের জন্য)।

এবি মাইনরের জন্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্র

1 . ছাত্রের জন্ম নিবন্ধনের ফটোকপি

2 স্টুডেন্ট আইডি বা বিদ্যালয়ের প্রত্যয়ন পত্র ।

 2 ছবি।

3 . অভিভাবকের জাতীয় পরিচয় পত্রের ফটোকপি ।

এবি মেজরের জন্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্র।

1 . জাতীয় পরিচয় পত্রের ফটোকপি।

2 . ছবি।

3 . স্টুডেন্ট আইডি বা বিদ্যালয়ের প্রত্যয়ন পত্র ।

সাধারণত এই সকল কাগজপত্র প্রয়োজন হয়। কিন্তু ব্যাংকের শাখা ভেদে কাগজপত্র কম বেশি নিতে পারে । 

Conclusion:

আজকের এই পোস্টে আমি এবি ব্যাংকের স্টুডেন্ট অ্যাকাউন্ট কিভাবে খুলতে হয়, প্রয়োজনীয় কাগজপত্র এবং সুবিধা নিয়ে আলোচনা করেছি । কোন মন্তব্য থাকলে বা কোন কিছু বুঝতে অসুবিধা হলে কমেন্ট করুন । আজ এটুকুই থাক । আবার নতুন পোস্টে কথা হবে। 

This Post Has One Comment

Leave a Reply

Md Nuruzzaman Islam

Hello Dear, I'm Md Nuruzzaman Islam known as Niloy. I'm a tech enthusiast and passionate Content Writer.