PayPal কী ? বাংলাদেশে পেপাল কবে আসবে ?

PayPal কী ? বাংলাদেশে পেপাল কবে আসবে ?

Paypal কী ? বাংলাদেশে পেপাল কবে আসবে ?

দিন দিন আন্তর্জাতিকভাবে টাকা পয়সা লেনদেনের পরিমাণ বেড়ে যাচ্ছে ।

এখন আমাদের অনেকেরই বিদেশ থেকে টাকা আসে ।

অথবা টাকা পাঠাতে হয় ।

অনেক প্রবাসী বা ফ্রিল্যান্সাররা বিদেশ থেকে দেশে টাকা আনেন ।

অথবা আমাদের দেশের মানুষের বিদেশে টাকা পাঠাতে হয় ।

যারা বিদেশি কোন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ভর্তির জন্য চেষ্টা করেন বা পড়ালেখা করেন ।

তাদের ভর্তি ফি, টিউশন ফি ইত্যাদি পাঠাতে হয় ।

আবার আপনি যদি আমার মত ব্লগার হয়ে থাকেন ।

তাহলে ভালো কোন কোম্পানির কাছে ডোমেইন, হোস্টিং কেনার জন্য পেমেন্ট করতে হয় ।

যেগুলো আন্তর্জাতিক প্রতিষ্ঠান ।

আবার অনেকে amazon বা আলী এক্সপ্রেস এর মত বড় বড় ই-কমার্স সাইট থেকে পণ্য অর্ডার করে থাকেন ।

যারা ডলার, ইউরো, পাউন্ড এর মত কারেন্সিতে পেমেন্ট নিয়ে থাকে ।

উপরে উল্লেখিত সকল ক্ষেত্রেই টাকা পাঠাতে অথবা আনতে আমরা খুবই ঝামেলার মধ্যে পড়ি ।

ব্যাংকের মাধ্যমে এরকম লেনদেন করা খুবই ঝামেলার এবং খুবই সীমিত লিমিট থাকে ।

এই সকল সমস্যার সমাধানে পেপাল ব্যবহার করা হয়ে থাকে ।

পেপালের মাধ্যমে খুব সহজেই টাকা-পয়সা আদান প্রদান করা যায় ।

এক্ষেত্রে সবকিছু ডলারে আদান প্রদান করা হয় এবং বিদেশীরা পেপাল ব্যবহারে স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করেন ।

PayPal কী ? 

পেপ্যাল হলো একটি ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান ।

যারা ইন্টারনেটের মাধ্যমে অর্থের স্থানান্তর বা হাতবদল করে থাকে।

পেপাল ব্যবহার করে কোন প্রকার ঝামেলা ছাড়া যে কোন দেশে টাকা স্থানান্তর করা যায় ।

পেপাল একটি আন্তর্জাতিক প্রতিষ্ঠান ।

যার মাধ্যমে শুধুমাত্র আপনার ইমেইল এড্রেস ব্যবহার করে আন্তর্জাতিকভাবে টাকার স্থানান্তর করতে পারবেন ।

পেপাল ব্যবহার করার সময় সহজ এবং পৃথিবীর প্রায় 203 টি দেশে পেপাল ব্যবহার করা যায় ।

পেপাল ব্যবহার করার জন্য শুধুমাত্র একাউন্ট খুলতে হয় । 

একাউন্ট নাম্বার হিসেবে যে ইমেইল এড্রেস দিয়ে একাউন্ট খোলা হয় সেটি ব্যবহার করা হয় ।

পেপাল ব্যবহার করে ডলার এর মাধ্যমে বিনিময় করা যায় ।

পেপার শুরুতে একটি পেমেন্ট সার্ভিস হিসেবে যাত্রা শুরু করলে এখন সেটি দৈনন্দিন ওয়ালেটের মতো পরিণত হয়েছে ।

যে কোন প্রকার ই-কমার্স ট্রানজেকশন খুবই স্মুথভাবে করা যায় ।

এবং ইউরোপে পেপার খুবই জনপ্রিয় ।

শুধু ইউরোপ নয় যেসব দেশে পেপাল ব্যবহার করার সুযোগ রয়েছে সেখানে Paypal খুবই জনপ্রিয় ।

পেপালের মধ্যে নিজের ব্যাংক অ্যাকাউন্ট এড করা যায় ।

পেপাল থেকে ব্যাংক একাউন্টে টাকা ট্রান্সফার করা যায়  

অথবা ব্যাংক অ্যাকাউন্ট থেকেও পেপালে টাকা ট্রান্সফার করা যায় ।

তবে একটি দুঃখের বিষয় হলো বাংলাদেশে এখনো পেপাল আসেনি ।

তাই বাংলাদেশ থেকে পেপাল একাউন্ট তৈরি করার সুযোগ নেই ।

বাংলাদেশে পেপাল কবে আসবে ?

বাংলাদেশের পেপাল কবে আসবে এটা শুধুমাত্র paypal ।

এবং বাংলাদেশ ব্যাংকের উচ্চ পদস্থ কর্মকর্তাদের মধ্যে হয়তো কেউ বলতে পারবে ।

তবে এটা সত্য যে পেপাল কবে আসবে সেটা পেপাল ছাড়া কেউ জানে না ।

প্রথম আলো একটা প্রতিবেদনে দেখলাম বেসিস এর একজন সাবেক জ্যেষ্ঠ সহ সভাপতি বলেছেন, “বাংলাদেশ ব্যাংকের নীতিমালার সঙ্গে না মেলায় পেপ্যাল আসছে না “।  

পেপাল কেন বাংলাদেশে আসছে না এটা সঠিকভাবে কেউই বলতে পারছে না ।

তবে যেহেতু বাংলাদেশের বাইরে থেকে অনেক টাকা আসে এবং বাংলাদেশের জনসংখ্যা অনেক বেশি ।

অর্থাৎ এখানকার মার্কেট খুবই ভালো ।

তাই পেপাল যদি নতুন কোন দেশে সার্ভিস শুরু করে ।

তাহলে সেখানে বাংলাদেশের থাকা সম্ভবনা রয়েছে ।

বাংলাদেশ থেকে পেপাল অ্যাকাউন্ট খোলার পদ্ধতি

বাংলাদেশের পেপাল আসেনি ।

তাই বলে বাংলাদেশ থেকে paypal ব্যবহার করা যাবে না এমন কোন কথা নেই ।

আপনার যদি অন্য কোন দেশে আত্মীয় – স্বজন বা বন্ধু থাকে ।

যাদের দেশে পেপাল রয়েছে তাদের নামে অ্যাকাউন্ট খুলে আপনি ব্যবহার করতে পারেন ।

আবার সম্ভবত সাইপ্রাস দেশ সিলেক্ট করে বাংলাদেশ থেকেই পেপাল বিজনেস একাউন্ট খোলা যায়।

এ ব্যাপারে ইউটিউবে অনেক টিউটোরিয়াল খুঁজে পাবেন সেগুলো দেখতে পারেন ।

Paypal ব্যবহার এর সুবিধা 

পেপাল ব্যবহারের অনেক সুবিধা রয়েছে ।

কিছু হল:

  • খুব সহজেই ইনস্ট্যান্ট বিদেশি কোন প্রতিষ্ঠানে বা ই-কমার্স সাইটে পেমেন্ট করা যায় ।
  • বাইরে থেকে খুব সহজেই টাকা আনা যায় এবং বিদেশীরা পেপাল ব্যবহারে খুবই স্বচ্ছন্দ্যবোধ করেন ।
  • পেপালের সার্ভিস চার্জ খুবই কম যার ফলে এটি অনেক জনপ্রিয় হয়েছে ।
  • পৃথিবীতে যেসব দেশে পেপাল ব্যবহারের সুযোগ রয়েছে সেখানে পেপাল খুবই জনপ্রিয় এবং কম বেশি সবাই ব্যবহার করে ।
  • বাইরে থেকে টাকা আনার ক্ষেত্রে পেপালের মাধ্যমে খুব দ্রুত আনা যায় ।
  • ব্যাংক একাউন্ট থেকে পেপারে টাকা ট্রান্সফার করা যায় ।
  • এবং পেপাল থেকেও টাকা ব্যাংক একাউন্টে নিয়ে আসা যায় ।

এগুলো ছাড়াও পেপালের আরো অনেক সুবিধা রয়েছে ।

শেষ কথা

আজকে আমরা জানলাম paypal কী এবং বাংলাদেশে পেপাল কবে আসবে।

আপনার আমার মত আমারও ওই একটাই আশা ।

বাংলাদেশে যাতে paypal দ্রুত শুরু হয় ।

কেননা যারা ফ্রিল্যান্সার বা বিদেশ থেকে টাকা আনেন, তাদের অনেক সমস্যা হয় ।

পেপালের মাধ্যমে দ্রুত আনা যায় এবং বিদেশী ক্লায়েন্টরা পেপালে বেশি স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করেন ।

Paypal বাংলাদেশে না আসায় অনেকে Web Money, Stripe,  Payoneer ইত্যাদি ব্যবহার করেন ।

তবে বিদেশে বায়াররা পেপাল ব্যবহার করতে স্বাচ্ছন্দ বোধ করেন এবং এখানে ঝামেলা খুবই কম । 

Read More,

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Share via
Copy link
Powered by Social Snap