ম্যানপাওয়ার কার্ড করতে কত টাকা লাগে? (Updated 2023)

ম্যানপাওয়ার কার্ড করতে কত টাকা লাগে?  ম্যানপাওয়ার কার্ড করতে কত টাকা লাগে তা জানতে চান?

তাই আমরা আজকে সম্পুর্ণ আরোচনা করছি।

ম্যানপাওয়ার কার্ড করতে কত টাকা লাগে

Table of Contents

এই নিবন্ধে আমরা ম্যানপাওয়ার কার্ড করতে কত টাকা লাগে, কিভাবে ম্যানপাওয়ার কার্ড করবেন, ম্যানপাওয়ার কার্ড করতে কি কি লাগে, ম্যানপাওয়ার কার্ডের সুবিধাসমূহ, এবং ম্যানপাওয়ার কার্ড করতে সম্পর্কিত আরও অনেক কিছু বিস্তারিতভাবে আলোচনা করেছি।

ম্যানপাওয়ার কার্ড কি?

ম্যানপাওয়ার কার্ড বা দক্ষতা ডেটাবেস কার্ড (BMET Smart Card) হলো বাংলাদেশি কর্মীদের দক্ষতা, অভিজ্ঞতা এবং শিক্ষাগত যোগ্যতার একটি ডিজিটাল ডেটাবেজ।

এই কার্ডে কর্মীর ব্যক্তিগত তথ্য, যেমন নাম, ঠিকানা, জন্ম তারিখ, পাসপোর্ট নম্বর ইত্যাদি, এবং তার কর্মক্ষেত্রের সাথে সম্পর্কিত তথ্য, যেমন দক্ষতা, অভিজ্ঞতা, শিক্ষাগত যোগ্যতা, প্রশিক্ষণ ইত্যাদি, সংরক্ষিত থাকে।

ম্যানপাওয়ার কার্ড বাংলাদেশী কর্মীদের বিদেশে কর্মসংস্থানের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি নথি।

বিদেশে কর্মসংস্থানের জন্য আবেদন করার সময় কর্মীদের ম্যানপাওয়ার কার্ড জমা দিতে হয়। ম্যানপাওয়ার কার্ডের মাধ্যমে নিয়োগকর্তারা কর্মীর দক্ষতা, অভিজ্ঞতা এবং শিক্ষাগত যোগ্যতা সম্পর্কে সহজেই জানতে পারেন।

ম্যানপাওয়ার কার্ড করতে কত টাকা লাগে?

ম্যানপাওয়ার কার্ড করতে সরকারিভাবে মোট ১,০০০ টাকা লাগে।

এই টাকার মধ্যে রেজিস্ট্রেশন ফি ৫০০ টাকা এবং কার্ড ফি ৫০০ টাকা অন্তর্ভুক্ত।

ম্যানপাওয়ার কার্ড করার জন্য আপনি অনলাইনে রেজিস্ট্রেশন করতে পারেন অথবা বেসরকারি ম্যানপাওয়ার রিক্রুটিং এজেন্সির মাধ্যমে আবেদন করতে পারেন।

বেসরকারি ম্যানপাওয়ার রিক্রুটিং এজেন্সিগুলি ম্যানপাওয়ার কার্ড করার জন্য তাদের নিজস্ব ফি নিয়ে থাকে।

ম্যানপাওয়ার কার্ড করতে কি কি লাগে?

ম্যানপাওয়ার কার্ড করার জন্য

আপনার নিম্নলিখিত নথিগুলি জমা দিতে হবে:

  • পূরণ করা ম্যানপাওয়ার কার্ড রেজিস্ট্রেশন ফরম
  • জাতীয় পরিচয়পত্রের সত্যায়িত কপি
  • পাসপোর্ট সাইজের দুটি রঙিন ছবি
  • সর্বশেষ শিক্ষাগত যোগ্যতার সনদের সত্যায়িত কপি
  • পেশাদার প্রশিক্ষণের সনদের সত্যায়িত কপি (যদি থাকে)
  • কাজের অভিজ্ঞতার সনদের সত্যায়িত কপি (যদি থাকে)

ম্যানপাওয়ার কার্ডের সুবিধাসমূহ

ম্যানপাওয়ার কার্ডের অনেক সুবিধা রয়েছে।

এর মধ্যে কয়েকটি হল:

  • বিদেশে কর্মসংস্থানের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি নথি।
  • নিয়োগকর্তারা কর্মীর দক্ষতা, অভিজ্ঞতা এবং শিক্ষাগত যোগ্যতা সম্পর্কে সহজেই জানতে পারেন।
  • বিদেশে কর্মসংস্থানের জন্য আবেদন করার সময় কর্মীদের ম্যানপাওয়ার কার্ড জমা দিতে হয়।
  • ম্যানপাওয়ার কার্ডের মাধ্যমে কর্মীরা বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধা পান, যেমন প্রশিক্ষণ, ঋণ, এবং সরকারি সাহায্য।

ম্যানপাওয়ার কার্ড করতে কিভাবে আবেদন করবেন?

ম্যানপাওয়ার কার্ড করতে আপনি অনলাইনে অথবা বেসরকারি ম্যানপাওয়ার রিক্রুটিং এজেন্সির মাধ্যমে আবেদন করতে পারেন।

টাকা দিয়ে সেক্স করাতে চাই

অনলাইনে আবেদন করার জন্য নিম্নলিখিত পদক্ষেপগুলি অনুসরণ করুন:

  1. BMET-এর ওয়েবসাইটে যান।
  2. “ম্যানপাওয়ার কার্ড রেজিস্ট্রেশন” অপশনে ক্লিক করুন।
  3. প্রয়োজনীয় তথ্য পূরণ করুন এবং আবেদন জমা দিন।

বেসরকারি ম্যানপাওয়ার রিক্রুটিং এজেন্সির মাধ্যমে আবেদন করার জন্য নিম্নলিখিত পদক্ষেপগুলি অনুসরণ করুন:

  1. একটি বেসরকারি ম্যানপাওয়ার রিক্রুটিং এজেন্সিতে যোগাযোগ করুন।
  2. প্রয়োজনীয় নথি জমা দিন।
  3. এজেন্সির মাধ্যমে আবেদন জমা দিন।

ম্যানপাওয়ার কার্ডের মেয়াদ

ম্যানপাওয়ার কার্ডের মেয়াদ ৫ বছর

মেয়াদ শেষ হওয়ার আগে ম্যানপাওয়ার কার্ড নবায়ন করতে হবে।

ম্যানপাওয়ার কার্ডের নবায়ন

ম্যানপাওয়ার কার্ড নবায়ন করতে

আপনাকে নিম্নলিখিত নথিগুলি জমা দিতে হবে:

  • পূরণ করা ম্যানপাওয়ার কার্ড নবায়ন ফরম
  • মেয়াদোত্তীর্ণ ম্যানপাওয়ার কার্ড
  • জাতীয় পরিচয়পত্রের সত্যায়িত কপি
  • পাসপোর্ট সাইজের দুটি রঙিন ছবি
  • সর্বশেষ শিক্ষাগত যোগ্যতার সনদের সত্যায়িত কপি
  • পেশাদার প্রশিক্ষণের সনদের সত্যায়িত কপি (যদি থাকে)
  • কাজের অভিজ্ঞতার সনদের সত্যায়িত কপি (যদি থাকে)

ম্যানপাওয়ার কার্ডের সাথে সম্পর্কিত FAQs

প্রশ্ন: ম্যানপাওয়ার কার্ড কি বিদেশে কর্মসংস্থানের জন্য বাধ্যতামূলক?

উত্তর: হ্যাঁ, ম্যানপাওয়ার কার্ড বিদেশে কর্মসংস্থানের জন্য বাধ্যতামূলক। বিদেশে কর্মসংস্থানের জন্য আবেদন করার সময় কর্মীদের ম্যানপাওয়ার কার্ড জমা দিতে হয়।

প্রশ্ন: ম্যানপাওয়ার কার্ডের মেয়াদ শেষ হওয়ার আগে কতদিন আগে নবায়ন করতে হবে?

উত্তর: ম্যানপাওয়ার কার্ডের মেয়াদ শেষ হওয়ার আগে ৩ মাস আগে নবায়ন করতে হবে।

প্রশ্ন: ম্যানপাওয়ার কার্ড হারিয়ে গেলে কি করতে হবে?

উত্তর: ম্যানপাওয়ার কার্ড হারিয়ে গেলে আপনাকে BMET-এর ওয়েবসাইটে গিয়ে বা BMET-এর যেকোনো শাখায় গিয়ে নতুন ম্যানপাওয়ার কার্ডের জন্য আবেদন করতে হবে।

প্রশ্ন: ম্যানপাওয়ার কার্ডের জন্য আবেদন করার বয়সসীমা কত?

উত্তর: ম্যানপাওয়ার কার্ডের জন্য আবেদন করার বয়সসীমা ১৮ থেকে ৪০ বছর

10 MANLY Habits To Increase Your Masculinity (Real Life Habit)

প্রশ্ন: ম্যানপাওয়ার কার্ডের জন্য আবেদন করার জন্য কোন শিক্ষাগত যোগ্যতা প্রয়োজন?

উত্তর: ম্যানপাওয়ার কার্ডের জন্য আবেদন করার জন্য কোন শিক্ষাগত যোগ্যতা প্রয়োজন হয় না। তবে, কিছু পেশার জন্য নির্দিষ্ট শিক্ষাগত যোগ্যতা প্রয়োজন হতে পারে।

প্রশ্ন: ম্যানপাওয়ার কার্ডের জন্য আবেদন করার জন্য কোন অভিজ্ঞতা প্রয়োজন?

উত্তর: ম্যানপাওয়ার কার্ডের জন্য আবেদন করার জন্য কোন অভিজ্ঞতা প্রয়োজন হয় না। তবে, কিছু পেশার জন্য নির্দিষ্ট অভিজ্ঞতা প্রয়োজন হতে পারে।

প্রশ্ন: ম্যানপাওয়ার কার্ডের জন্য আবেদন করার জন্য কোন প্রশিক্ষণ প্রয়োজন?

উত্তর: ম্যানপাওয়ার কার্ডের জন্য আবেদন করার জন্য কোন প্রশিক্ষণ প্রয়োজন হয় না। তবে, কিছু পেশার জন্য নির্দিষ্ট প্রশিক্ষণ প্রয়োজন হতে পারে।

প্রশ্ন: ম্যানপাওয়ার কার্ডের জন্য আবেদন করার সময় কী কী সমস্যা হতে পারে?

উত্তর: ম্যানপাওয়ার কার্ডের জন্য আবেদন করার সময় নিম্নলিখিত সমস্যাগুলি হতে পারে:

  • প্রয়োজনীয় নথিগুলি সঠিকভাবে পূরণ না করা।
  • প্রয়োজনীয় নথিগুলির সত্যায়িত কপি না জমা দেওয়া।
  • আবেদন ফি জমা না দেওয়া।
  • স্বাস্থ্য পরীক্ষায় উত্তীর্ণ না হওয়া।

 

প্রশ্ন: ম্যানপাওয়ার কার্ডের জন্য আবেদন করার জন্য কোথায় যেতে হবে?

উত্তর: ম্যানপাওয়ার কার্ডের জন্য আবেদন করার জন্য আপনি BMET-এর যেকোনো শাখায় যেতে পারেন। আপনি অনলাইনেও আবেদন করতে পারেন।

প্রশ্ন: ম্যানপাওয়ার কার্ডের জন্য আবেদন করার সময় কী কী সাবধানতা অবলম্বন করতে হবে?

উত্তর: ম্যানপাওয়ার কার্ডের জন্য আবেদন করার সময় নিম্নলিখিত সাবধানতা অবলম্বন করতে হবে:

  • প্রয়োজনীয় নথিগুলি সঠিকভাবে পূরণ করুন।
  • প্রয়োজনীয় নথিগুলির সত্যায়িত কপি জমা দিন।
  • আবেদন ফি জমা দিন।
  • স্বাস্থ্য পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হওয়ার জন্য প্রস্তুত থাকুন।

প্রশ্ন: ম্যানপাওয়ার কার্ডের জন্য আবেদন করার সময় কোন ধরনের ছবি লাগে?

উত্তর: ম্যানপাওয়ার কার্ডের জন্য আবেদন করার সময় পাসপোর্ট সাইজের দুটি রঙিন ছবি লাগে। ছবিগুলি অবশ্যই সাম্প্রতিক এবং ভালো মানের হতে হবে। ছবিগুলিতে আপনার মুখের পুরোটা দেখা যাওয়া উচিত এবং আপনার চোখ খোলা থাকা উচিত।

প্রশ্ন: ম্যানপাওয়ার কার্ডের মেয়াদ শেষ হওয়ার পর কি করা যাবে?

উত্তর: ম্যানপাওয়ার কার্ডের মেয়াদ শেষ হওয়ার পর আপনি ম্যানপাওয়ার কার্ড নবায়ন করতে পারবেন। ম্যানপাওয়ার কার্ড নবায়ন করতে আপনাকে নিম্নলিখিত নথিগুলি জমা দিতে হবে:

  • পূরণ করা ম্যানপাওয়ার কার্ড নবায়ন ফরম
  • মেয়াদোত্তীর্ণ ম্যানপাওয়ার কার্ড
  • জাতীয় পরিচয়পত্রের সত্যায়িত কপি
  • পাসপোর্ট সাইজের দুটি রঙিন ছবি
  • সর্বশেষ শিক্ষাগত যোগ্যতার সনদের সত্যায়িত কপি
  • পেশাদার প্রশিক্ষণের সনদের সত্যায়িত কপি (যদি থাকে)
  • কাজের অভিজ্ঞতার সনদের সত্যায়িত কপি (যদি থাকে)

 

প্রশ্ন: ম্যানপাওয়ার কার্ড হারিয়ে গেলে কি করা যাবে?

উত্তর: ম্যানপাওয়ার কার্ড হারিয়ে গেলে আপনাকে BMET-এর ওয়েবসাইটে গিয়ে বা BMET-এর যেকোনো শাখায় গিয়ে নতুন ম্যানপাওয়ার কার্ডের জন্য আবেদন করতে হবে।

প্রশ্ন: ম্যানপাওয়ার কার্ডের জন্য আবেদন করার সময় কি কোনো সমস্যা হলে কোথায় যোগাযোগ করা যাবে?

উত্তর: ম্যানপাওয়ার কার্ডের জন্য আবেদন করার সময় কোনো সমস্যা হলে আপনি BMET-এর হটলাইন নম্বরে যোগাযোগ করতে পারেন। BMET-এর হটলাইন নম্বর হলো ফোন নং: +৮৮০-২-৪৯৩৫৭৯৭২, ৪৯৩৪৯৯২৫।

ফিঙ্গার দেবার কত দিন পর ম্যানপাওয়ার কার্ড হয়

সাধারণত, ফিঙ্গার দেবার এক মাসের মধ্যে ম্যানপাওয়ার কার্ড পাওয়া যায়। তবে, কিছু ক্ষেত্রে এই সময় আরও বেশি হতে পারে। এর কারণ হল, ম্যানপাওয়ার অফিস থেকে কার্ড তৈরির জন্য কিছু প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে হয়, যেমন:

  • আবেদনপত্র যাচাই করা
  • ফিঙ্গারপ্রিন্ট যাচাই করা
  • কার্ড প্রস্তুত করা

যদি কোনো আবেদনপত্রের ক্ষেত্রে কোনো অসঙ্গতি পাওয়া যায়, তাহলে সেই আবেদনপত্রের প্রক্রিয়াকরণে আরও সময় লাগতে পারে। এছাড়াও, যদি কোনো আবেদনপত্রের ক্ষেত্রে কোনো অতিরিক্ত তথ্য বা কাগজপত্রের প্রয়োজন হয়, তাহলে সেই আবেদনপত্রের প্রক্রিয়াকরণে আরও সময় লাগতে পারে।

বর্তমানে, 2023 সালের 10ই অক্টোবর, ফিঙ্গার দেওয়ার পর থেকে ম্যানপাওয়ার কার্ড পাওয়ার গড় সময় প্রায় এক মাস। তবে, কোনো কোনো ক্ষেত্রে এই সময় আরও বেশি হতে পারে।

ম্যানপাওয়ার কার্ড পেতে হলে, আবেদনপত্র জমা দেওয়ার পর, আবেদনকারীকে বিএমইটি অফিসের ওয়েবসাইটে গিয়ে তার আবেদনের অবস্থার ট্র্যাক করতে হবে। আবেদনের অবস্থা “প্রক্রিয়াাধীন” থেকে “প্রস্তুত” হলে, আবেদনকারী তার কার্ড বিএমইটি অফিস থেকে সংগ্রহ করতে পারবেন।

ম্যানপাওয়ার কার্ড বিদেশে যেতে বাধ্যতামূলক। এই কার্ড ছাড়া কোনো প্রবাসী শ্রমিক ভিসা নিতে পারবেন না।

উপসংহার

ম্যানপাওয়ার কার্ড বাংলাদেশী কর্মীদের বিদেশে কর্মসংস্থানের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি নথি। ম্যানপাওয়ার কার্ডের মাধ্যমে কর্মীরা বিদেশে কর্মসংস্থানের সুযোগ পান এবং বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধা উপভোগ করেন।

Leave a Comment