কম্পিউটার হার্ডওয়্যার কি ? কম্পিউটার হার্ডওয়্যার পরিচিতি

কম্পিউটার হার্ডওয়্যার কি ? কম্পিউটার হার্ডওয়্যার পরিচিতি ।

কম্পিউটার যন্ত্রটি আমরা সবাই চিনি । কম্পিউটার বলতে অনেকে শুধু ডেস্কটপ কম্পিউটার বুঝে থাকে । কিন্তু ডেস্কটপ কম্পিউটার, ল্যাপটপ, মোবাইল ফোন কিংবা আপনার ডিজিটাল টিভি, ক্যালকুলেটর এসব কিছুই একটি কম্পিউটার । 

কম্পিউটার শব্দের অর্থ হলো গণনা করার যন্ত্র । যে যন্ত্রনা গণনা করে তাকেই কম্পিউটার বলা হয় । 

একটি কম্পিউটারের বাহ্যিক যে যন্ত্র গুলো রয়েছে । তাকেই কম্পিউটারের হার্ডওয়্যার বলা হয় । কম্পিউটার মূলত দুই ধরনের বিষয় দিয়ে গঠিত । একটি হলো হার্ডওয়্যার, এর মাধ্যমে কম্পিউটারের গঠন তৈরি হয় এবং অন্যটি সফটওয়্যার   যার মাধ্যমে আমরা কম্পিউটারের ভিতরে বিভিন্ন কাজ করতে পারি ।

হার্ডওয়্যার এবং সফটওয়্যার একসাথে কাজ করে বিধায় আমরা কম্পিউটারে বিভিন্ন ধরনের কাজ করতে পারি । আজকে আমরা কম্পিউটারের হার্ডওয়ার সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য জানবো ।

কম্পিউটারের হার্ডওয়্যার সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে সম্পন্ন আর্টিকেলটি পড়ুন ।

কম্পিউটার হার্ডওয়্যার কি / কাকে বলে ?

কম্পিউটারের বাহ্যিক যে যন্ত্রাংশ গুলো রয়েছে সেগুলো প্রত্যেকটি কে কম্পিউটারের হার্ডওয়্যার বলে । কম্পিউটারের হার্ডওয়্যার সমূহ একসাথে কাজ করার মাধ্যমে একটি কম্পিউটার কাজ করতে পারে । 

কম্পিউটারের যেকোনো একটি হার্ডওয়্যার অকেজো হয়ে গেলে কম্পিউটার টি ব্যবহারের অযোগ্য হয়ে পরে । কম্পিউটার এর প্রত্যেকটি হার্ডওয়ার খুবই গুরুত্বপূর্ণ । 

ডেস্কটপ কম্পিউটারের হার্ডওয়ার গুলো আমরা প্রত্যেকটি আলাদা আলাদা দেখতে পাই ।ডেস্কটপ কম্পিউটারের সিপিইউ প্যানেলটি খুললেই ভিতরে প্রত্যেকটি হার্ডওয়ার স্পষ্ট ভাবে দেখা যায় । 

তবে ল্যাপটপ, মোবাইল এবং অন্যান্য যন্ত্রের ভিতরে প্রত্যেকটি কম্পোনেন্ট একসাথে লাগানো থাকে । এসব যন্ত্রের ভিতরে হার্ডওয়ার গুলো খুবই ছোট আকারের হয় এবং খুব ছোট জায়গার মধ্যে একটি বোর্ডের উপরে লাগানো হয় ।

See also  মৌজা কী ? মৌজা কিভাবে বের করতে হয় ?

আরো পড়ুন,

কম্পিউটার হার্ডওয়্যার এর কাজ

কম্পিউটারের হার্ডওয়ারের কাজ হলো একটি কম্পিউটারে সচলভাবে চালানো । কম্পিউটারের কোন একটি হার্ডওয়্যার ছাড়া কম্পিউটারটি ঠিকভাবে চলতে পারবে না । কম্পিউটারের প্রত্যেকটি হার্ডওয়ার তার নিজস্ব কাজ করে । প্রত্যেকে কাজের মাধ্যমে একটি কম্পিউটার ঠিকমতো চলে ।

প্রত্যেকটি হার্ডওয়্যার এর কাজ আলাদা আলাদা । যেমন: মনিটরের কাজ হল কম্পিউটারের কোন কিছু ডিসপ্লে করা, মাউসের কাজ হলো মাধ্যমে কম্পিউটারের বিভিন্ন প্রোগ্রাম খোলা – বন্ধ করার মতো বিভিন্ন কমান্ড দেওয়া, কিবোর্ড এর কাজ হল লেখালেখি করা ইত্যাদি ।

কম্পিউটার হার্ডওয়্যার পরিচিতি

কম্পিউটারের প্রতিটি হার্ডওয়্যার এর কাজ এবং ব্যবহার আলাদা আলাদা   তাই এখানে আমরা কম্পিউটারের প্রত্যেকটি হার্ডওয়্যার সম্পর্কে বিস্তারিত বলছি ।

মনিটর

একটি কম্পিউটারের দিকে তাকালে আমরা সর্বপ্রথম মনিটর দেখতে পাই । মনিটরের মধ্যে কম্পিউটারের সকল প্রগ্রাম দৃশ্যমান হয় । মনিটরের মধ্যে আমরা কম্পিউটারের যে কোন কাজ দেখতে পাই ।  

মাউস 

একটি কম্পিউটার চালানোর জন্য সবচেয়ে বেশি যে যন্ত্রের ব্যবহার করা হয় সেটি হল মাউস । মাউসের মাধ্যমে কম্পিউটারের কোন একটি প্রোগ্রাম খোলা বা বন্ধ করা হয় এবং ওই প্রোগ্রামটির মধ্যে বিভিন্ন কাজ করা হয় । 

কম্পিউটার চালানোর জন্য সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ যন্ত্রটি হলো মাউস । এছাড়াও এখন মাউসের বদলে এখন Touch pad বা ট্রাকপ্যাড ব্যবহার করা হয় ।

কী বোর্ড

কম্পিউটারের মধ্যে লেখালেখি করার জন্য কিবোর্ড এর ব্যবহার করা হয় । লেখালেখি ছাড়াও বিভিন্ন শর্টকাট এবং অন্যান্য কাজের জন্য কিবোর্ড ব্যবহার করা হয় ।

কিবোর্ড ব্যবহার করে কম্পিউটারের মধ্যে বিভিন্ন তথ্য ইনপুট দেওয়া হয় । এছাড়াও কি বোর্ডের মধ্যে বিভিন্ন শর্টকাট কি রয়েছে । যেগুলো কম্পিউটার ব্যবহারের সময় কাজ দ্রুত সম্পন্ন করতে সাহায্য করে।

See also  কিভাবে বিটকয়েন কেনা যায় । How to buy Bitcoin in Bangla

প্রসেসর

কম্পিউটারের প্রসেসর কে কম্পিউটারের মস্তিষ্ক বলা যায় । আমাদের মস্তিষ্ক যেমন আমাদের সারা শরীরকে পরিচালনা করে । তেমনি কম্পিউটারের প্রসেসরও কম্পিউটারকে নিয়ন্ত্রণ করে । 

প্রসেসরের মূল কাজ হল কোন তথ্য প্রসেস করা এবং বিভিন্ন ধরনের কাজ সম্পন্ন করা । কোন একটি প্রোগ্রাম রান করা হলে তা প্রসেসরের মাধ্যমেই রান করা হয় ।

প্রসেসরটি ওই প্রোগ্রাম কে রান করে । প্রসেসরটি মাদারবোর্ডের মাঝখানে বসানো থাকে এবং ওখান থেকে পুরা কম্পিউটারটিকে নির্দেশনা দেয় ।

মাদারবোর্ড

কম্পিউটারের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ অংশ মাদারবোর্ড । কম্পিউটারের মাদারবোর্ড এর মধ্যেই অন্যান্য সকল যন্ত্র বসানো থাকে । 

প্রসেসর, স্টোরেজ, গ্রাফিক্স কার্ড সবকিছুই মাদারবোর্ডের মধ্যে বসানো থাকে । মাদারবোর্ডের মাধ্যমে কম্পিউটারের একটি যন্ত্রাংশ অন্যটির সাথে যুক্ত হয় এবং কার্যসম্পাদন করে । কম্পিউটারের প্রসেসরের পর সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ যন্ত্র হলো মাদারবোর্ড ।

Ram

RAM শব্দের পূর্ণ অর্থ হলো Random Access Memory ।

কম্পিউটার এর কোন ডাটা বা উপাত্ত ইনপুট দেওয়ার পর সাময়িকভাবে তা রেম মধ্যে থাকে । অথবা কোন প্রোগ্রাম রান করলে সেটা রেমের উপরে রান হয় । 

Ram মধ্যে নির্দিষ্ট স্টোরেজ থাকে । যা অতি দ্রুত রিড এবং রাইট করতে পারে । অর্থাৎ খুব দ্রুত কোন ডেটা পড়তে অথবা লিখতে পারে ।

কোন একটা প্রোগ্রাম গান করলে তার তথ্য সমূহ রেম এর মধ্যে সাময়িকভাবে জমা থাকে । 

এবং তা সেভ করলে স্টোরেজ এর মধ্যে একদম পার্মানেন্ট ভাবে সেভ হয় ।

কম্পিউটার বন্ধ করলে ram এর সকল তথ্য মুছে যায় ।

স্টোরেজ

আমরা যখন কম্পিউটারের মধ্যে কোন গান, ছবি, ভিডিও সেভ করে রাখি । সেটা স্টোরেজের মধ্যে সেভ হয় । 

অর্থাৎ যে কোন প্রকার তথ্য আমরা যখন কম্পিউটারে রাখি তা স্টোরেজে থাকে । আবার যখন আমরা এই তথ্য দেখতে চাই । তখন ওই স্টোরেজ থেকে এনে কম্পিউটার আমাদেরকে দেখায় । তথ্য সংরক্ষণ করার জন্য স্টোরেজ খুবই গুরুত্বপূর্ণ ।

See also  আইওটি ( IOT ) কি?কিভাবে কাজ করে? What is IOT and how it works in bangla

গ্রাফিক্স কার্ড

কম্পিউটারের সকল প্রকার গ্রাফিক্স রিলেটেড কাজের জন্য গ্রাফিক্স কার্ড এর ব্যবহার করা হয় । আমরা মনিটরে যা কিছু দেখতে পাই সবকিছুই গ্রাফিক্স এর কাজ । 

কম্পিউটারের গ্রাফিক্সের কাজের জন্য গ্রাফিক্স কার্ডের প্রয়োজন হয় । এখন সাধারণত কম্পিউটারের প্রসেসরের সাথে গ্রাফিক্স কার্ড দেওয়া থাকে । 

অর্থাৎ নির্দিষ্ট পরিমাণে গ্রাফিক্স কার্ড প্রসেসরের মধ্যেই লাগানো থাকে । যাতে সাধারণ গ্রাফিক্সের কাজগুলো আমরা করতে পারি । তাই গ্রাফিক্স কার্ড ছাড়াই আমরা কম্পিউটারের সকল প্রকার ভিডিও অডিও অর্থাৎ ডিসপ্লে দেখতে পাই ।

পুরাতন কিছু প্রসেসর রয়েছে । যেমন: ইন্টেলের প্রথম অথবা দ্বিতীয় জেনারেশনের প্রসেসরগুলো । সেগুলোতে কোন প্রকার গ্রাফিক্স কার্ড প্রসেসরের সাথে থাকে না । তাই এক্সট্রা কোন গ্রাফিক্স কার্ড না লাগালে ডিসপ্লেতে কোন কিছু দেখা যায় না ।

ভারি ভারি কাজ (যেমন: ভিডিও এডিটিং, গেমিং ) করার জন্য আলাদা করে গ্রাফিক্স কার্ড লাগানো হয় । ফলে গ্রাফিক্স এর কাজগুলো অতি দ্রুত সম্পন্ন করা যায় ।

শেষ কথা

উপরে উল্লেখিত হার্ডওয়্যার গুলো ছাড়াও আরো অনেক হার্ডওয়্যার রয়েছে । যেগুলো বিভিন্ন বিশেষ কাজের জন্য ব্যবহার করা হয় । 

যেমন: ডিভিডি রাইটারের মাধ্যমে সিডি কম্পিউটারে প্লে করা যায়, স্ক্যানারের মাধ্যমে কোন কাগজ স্ক্যান করা যায়,  ওয়েব ক্যামের এর মাধ্যমে ছবি তোলা ও ভিডিও করা যায় ।

আজকের ব্লক পোষ্টের মাধ্যমে আমরা কম্পিউটারের হার্ডওয়ারের কি , কম্পিউটারের প্রতিটি হার্ডওয়্যার সম্পর্কে বিস্তারিত জানলাম । এবং কম্পিউটার এর হার্ডওয়্যার এর সাথে পরিচিতি হলাম। 

কোথাও কোন কিছু বুঝতে সমস্যা হলে অবশ্যই কমেন্টে জানাবেন। 

Leave a Comment

Share via
Copy link
Powered by Social Snap